বৃহস্পতিবার রাত ৮:৪৪

২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

১৫ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ শরৎকাল

সাতক্ষীরায় মাটি খুঁড়ে মিলল দেড়শ বছর পুরনো সিন্দুক

সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ইসলামকাটি ইউনিয়নের রেজিস্ট্রি অফিসের পুরাতন ভবন অপসারণকালে এই সিন্দুকটি পাওয়া যায়। তালাবদ্ধ সিন্দুকের মধ্যে কি রয়েছে তা নিশ্চিত করে জানাতে পারেনি কেউ।তবে ধারণা করা হচ্ছে,  সোমবার বিকালে মাটি খুঁড়তে গিয়ে পাওয়া এই সিন্দুক দেড়শ বছরেরও বেশি পুরাতন।

ইসলামকাটি গ্রামের শত বছরের বৃদ্ধ বাবুলাল ঘোষ জানান, জমিদার সুরীন্দ্রনাথ চক্রবর্তী এখানে ব্যবসায়িক কাজে ভবনটি নির্মাণ করেছিলেন দেড়শ বছর আগে। ওই সময় তিনি বড় ব্যবসায়ী ছিলেন। ১৯২৬ সালে ওই ভবনে পোস্ট অফিস করা হয়। এরপর করা হয় রেজিস্ট্রি অফিস। দেশ ভাগের আগে জমিদার সুরীন্দ্রনাথ চক্রবর্তী কলকাতায় মারা যান। তার পরিবারের সকল সদস্যরা হাজার হাজার বিঘা সম্পত্তি ও বাড়ি ঘর ফেলে ভারতে চলে যান। ভবন ভাঙতে গিয়ে মাটির নিচে পাওয়া সিন্দুকটিতে সে সময়কালের মুদ্রা বা অন্যকিছু থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে, সিন্দুক পাওয়ার ঘটনা শুনে দেখার জন্য বিভিন্ন স্থান থেকে এলাকাবাসী ভিড় জমান।

তালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদি রাসেলের সাথে কথা বলে জানা যায়, সিন্দুকটি পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়েছিলো।তারপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরিন, উপজেলা ভূমি কমিশনার সহ সকলের উপস্থিতিতে সিন্দুকটি সিলগালা করে বিকালেই জেলা প্রশাসক বরারব পাঠিয়ে দেয়া হয়। এর মধ্যে কি রয়েছে সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “সিন্দুকটির মধ্যে কি রয়েছে সেটি দেখা সম্ভব হয়নি। কারণ সিন্দুকটি খোলার অনুমতি ছিলোনা”।

এ বিষয়ে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামালের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “সিন্দুকটি তালা থেকে আমার কাছে এসেছে”। সিন্দুকটির ভিতরে কি আছে সেটা জানতে চাইলে তিনি বলেন, “সিন্দুকটি সিলগালা অবস্থায় রাখা হয়েছে।আমরা কমিশনার স্যার বরাবর চিঠি দেবো। তারপর হয়তো কমিশনারের নির্দেশনা মোতাবেক প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের কাছে সিন্দুকটি হস্তান্তর করা হবে”।







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ। মোবাইল: ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭১৩-৫১২৫৮২।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে