শনিবার রাত ১১:৩৩

২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

২৫শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বর্ষাকাল

শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ঈদের ছুটি

ঈদের আগে শেষ কর্মদিবস আজ বৃহস্পতিবার। আগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ঈদের ছুটি।
এবার ঈদের ছুটি তিনদিন ঘোষণা করেছে সরকার। ১ আগস্ট, শনিবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। এ উপলক্ষে আগামীকাল ৩১ জুলাই, ১ আগস্ট ঈদের দিন এবং ২ আগস্ট রোববার ছুটি থাকবে।

এবারের ঈদের ছুটির সময় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাধ্যতামূলক কর্মস্থলে থাকতে হবে। তারা কর্মস্থল ত্যাগ করতে পারবেন না।

গত ১৩ জুলাই অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে যোগ দেন। পরে বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘ঈদের ছুটির সময় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং আসন্ন ঈদুল আজহায় সরকারি ছুটি বাড়ানো হবে না।’

কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ৩০ মে পর্যন্ত টানা ৬৬ দিন সরকারি সাধারণ ছুটি ছিল। এরপর ধীরে ধীরে সীমিত পরিসরে অফিসগুলোতে কাজকর্ম শুরু হওয়ায় ঈদের সময় আর বাড়তি ছুটির চিন্তা-ভাবনা সরকারের নেই বলেও সচিব জানান।

ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয় ছিল স্বাভাবিক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি অন্যদিনের মতোই ছিল।

ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে সাধারণত অনেককে হাজিরা দিয়েই বাড়ি ফিরতে রেলস্টেশন, বাসস্টেশন কিংবা লঞ্চঘাটের দিকে ছুটতে দেখা গেলেও, ছুটিতে কর্মস্থলে থাকার নির্দেশনার কারণে এবার সেই চিত্র খুব একটা চোখে পড়ছে না।

আজ সচিবালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা বিনিময় করতে দেখা গেছে।

এদিকে ঈদে গার্মেন্টসসহ বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ছুটিও তিনদিন রাখা হয়েছে। পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর পক্ষ থেকে গার্মেন্টস কর্মীদের ঈদে রাজধানী ছেড়ে না যাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। তাই এবার খুব কম সংখ্যক মানুষই ঈদ উপলক্ষে রাজধানী ছাড়ছেন।ঈদের আগে শেষ কর্মদিবস আজ বৃহস্পতিবার। আগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ঈদের ছুটি।
এবার ঈদের ছুটি তিনদিন ঘোষণা করেছে সরকার। ১ আগস্ট, শনিবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। এ উপলক্ষে আগামীকাল ৩১ জুলাই, ১ আগস্ট ঈদের দিন এবং ২ আগস্ট রোববার ছুটি থাকবে।

এবারের ঈদের ছুটির সময় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাধ্যতামূলক কর্মস্থলে থাকতে হবে। তারা কর্মস্থল ত্যাগ করতে পারবেন না।

গত ১৩ জুলাই অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে যোগ দেন। পরে বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘ঈদের ছুটির সময় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং আসন্ন ঈদুল আজহায় সরকারি ছুটি বাড়ানো হবে না।’

কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ৩০ মে পর্যন্ত টানা ৬৬ দিন সরকারি সাধারণ ছুটি ছিল। এরপর ধীরে ধীরে সীমিত পরিসরে অফিসগুলোতে কাজকর্ম শুরু হওয়ায় ঈদের সময় আর বাড়তি ছুটির চিন্তা-ভাবনা সরকারের নেই বলেও সচিব জানান।

ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয় ছিল স্বাভাবিক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি অন্যদিনের মতোই ছিল।

ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে সাধারণত অনেককে হাজিরা দিয়েই বাড়ি ফিরতে রেলস্টেশন, বাসস্টেশন কিংবা লঞ্চঘাটের দিকে ছুটতে দেখা গেলেও, ছুটিতে কর্মস্থলে থাকার নির্দেশনার কারণে এবার সেই চিত্র খুব একটা চোখে পড়ছে না।

আজ সচিবালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা বিনিময় করতে দেখা গেছে।

এদিকে ঈদে গার্মেন্টসসহ বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ছুটিও তিনদিন রাখা হয়েছে। পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর পক্ষ থেকে গার্মেন্টস কর্মীদের ঈদে রাজধানী ছেড়ে না যাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। তাই এবার খুব কম সংখ্যক মানুষই ঈদ উপলক্ষে রাজধানী ছাড়ছেন।







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে