মঙ্গলবার রাত ১২:৪৪

২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

৯ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ হেমন্তকাল

যে চোখে নির্ভরতা খুঁজে পান নাঈম-শাবনাজ

১৯৯৪ সাল। পরিচালক এহতেশাম নির্মাণ করেন ‘চোখে চোখে’ চলচ্চিত্রটি। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন নাঈম-শাবনাজ। সিলেটে এই চলচ্চিত্রের শুটিং হয়। শুটিং করতে গিয়ে যে বাংলোতে উঠেছিলেন সেই বাংলোর ম্যানেজার শুটিং টিমকে আম্ন্ত্রণ জানায়। সেখানে শাবনাজের বাবা উপস্থিত হয়েছিলেন।

এই আয়োজনের এক ফাঁকে শাবনাজকে বাইরে ডেকে নিয়ে যায় নাঈম। কোনো দ্বিধা না করে মনের সব কথা শাবনাজকে খুলে বলেন নাঈম। কিন্তু নাঈমের বিয়ের প্রস্তাবের বিষয়টি শাবনাজের কাছে আকস্মিক মনে হয়নি। কারণ শাবনাজ নিজেও নাঈমকে অনুভব করতেন। তারপর ১৯৯৪ সালের ৫ অক্টোবর কবুল বলেন এই দম্পতি।

সেই সময়ের অনুভূতি ব্যক্ত করে শাবনাজ বলেন—ওর (নাঈম) কাছ থেকে এমন প্রস্তাব পাওয়া আমার কাছে চমক ছিল না। কারণ আমিও ওকে গভীরভাবে অনুভব করতাম। একটানা একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে পরস্পরের মধ্যে বোঝাপড়া তৈরি হয়। আর সেই সম্পর্ক যদি দুজনের মধ্যে নিবিড় আর নির্ভরযোগ্য করা যায় তাতে ক্ষতি কি? তাই ওর প্রস্তাবে সম্মতি জানাতে একটুও দেরি করিনি।

‘ছাড়বো না ছাড়বো না তোমায় ছাড়বো না/ বাঁচবো না বাঁচবো না একা বাঁচবো না’—‘অনুতপ্ত’ সিনেমায় ব্যবহৃত এই গানে কণ্ঠ দিয়েছেন সাবিনা ইয়াসমীন ও প্রয়াত সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর। আর গানটিতে ঠোঁট মিলিয়েছেন নাঈম-শাবনাজ। ঠিক এই গানের মতোই এখনো কেউ কাউকে ছেড়ে যাননি। কেউ একা বাঁচতেও চাননি। হাতে হাত রেখে জীবনের ২৬টি বসন্ত পরম মমতা ও ভালোবাসার এক চাদরে কাটিয়েছেন তারা। আজ (৫ অক্টোবর) দাম্পত্য জীবনের ২৭ বছরে পা দিলেন এই জুটি। আজও অমলিন তাদের প্রেম ও বন্ধুত্ব। নামিয়া ও মাহাদিয়ার জন্মের পর এই দম্পতির ভালোবাসা যেন হাজার গুণ বেড়ে গিয়েছে।

পরিচালক এহতেশামের ‘চাঁদনী’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় একসঙ্গে পা রাখেন নাঈম ও শাবনাজ। এরপর ‘দিল’, ‘জিদ’, ‘অনুতপ্ত’, ‘সোনিয়া’, ‘সাক্ষাৎ’, ‘টাকার অহংকার’, ‘ফুল আর কাঁটা’, ‘চোখে চোখে’সহ অনেক জনপ্রিয় চলচ্চিত্র উপহার দেন এই জুটি। অভিনয় ক্যারিয়ারে তারা জুটি বেঁধে ২১টির বেশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তাদের একসঙ্গে অভিনীত শেষ চলচ্চিত্রের নাম ‘ঘরে ঘরে যুদ্ধ’। ১৯৯৪ সালে মুক্তি পায় এটি।

১৯৯৪ সালে প্রিয় মানুষ শাবনাজকে স্ত্রী হিসেবে ঘরে তুলেন নাঈম। একই বছর তার জীবনে নেমে আসে নানা সংকট। ১৯৯৪ সালে প্রথম চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেন নাঈম। তার প্রযোজিত ‘আগুন জ্বলে’ চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়ীকভাবে ব্যর্থ হয়। যার কারণে আর্থিক সংকটে পড়েন নাঈম। একই বছর এ চিত্রনায়ক তার বাবাকে হারান। এসব ঘটনার পর পুরোপুরি চলচ্চিত্রবিমুখ হয়ে পড়েন এই দম্পতি। বর্তমানে সংসার নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা। চলচ্চিত্রে না থাকলেও সব সংকট কাটিয়ে ব্যক্তিগত জীবনে দারুণ সময় পার করছেন নাঈম-শাবনাজ।

ঢাকা/শান্ত

Comments are closed.







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ। মোবাইল: ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭১৩-৫১২৫৮২।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে