বৃহস্পতিবার বিকাল ৪:১৯

২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

১০ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ হেমন্তকাল

ম্যাসাজেই দূর হবে পেট ফাঁপা ও বদহজম

পেটের কোনো না কোনো সমস্যায় ভুগছেন না, এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া মুশকিল। খাবারে একটু এদিক-সেদিক হলেই পেটের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। পেটে চাপ বাড়তে থাকে তখন পাচনতন্ত্রের বিভিন্ন অংশে আটকে থাকা গ্যাসের জন্য ভুগতে পারেন, যার ফলে ফুলে যাওয়া পেট, বদ হজম এবং পেট ফাঁপাসহ বিভিন্ন লক্ষণ দেখা দেয়। বদহজমের মূল কারণ আপনি যখন খুব বেশি এবং খুব দ্রুত কিছু খান, তখন এটি আপনার উইন্ড পাইপে একটি ফাঁকা তৈরি করে। তাই বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন, খাবার ধীরে ধীরে এবং ভালোভাবে চিবিয়ে খাবেন।

হজমে গোলমাল হলে তা পেট ব্যথা বা আরও বড় সমস্যার কারণ হতে পারে। এর ফলে হতে পারে কোষ্ঠকাঠিন্যও। এক্ষেত্রে আপনার করণীয় কী? ব্যথানাশক খেয়ে সমস্যা দূর করার চেষ্টা করবেন? পেটে অস্বস্তি কিংবা ব্যথা হলে তা আমাদের নিত্যদিনের কাজ ব্যহত করে। তখন নানা উপায় মেনেও সমাধান মেলে না। ব্যথা নাশকে সাময়িক মুক্তি মিললেও পরে তার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। এক্ষত্রে ঘরোয়া প্রতিকার মেনে চলতে পারেন।

পেটে এই জাতীয় সমস্যার ক্ষেত্রে অনেকরকম ঘরোয়া উপায় রয়েছে। তবে সব উপায় যে সমানভাবে কাজ করে তা কিন্তু নয়। কিছু উপায় মেনে চললে সমস্যাটি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে এমন একটি সমাধান রয়েছে যা দ্রুত, সহজ এবং এর জন্য আর কোনো প্রস্তুতির প্রয়োজন হয় না। আপনাকে যা করতে হবে তা হলো নিজেকে দুই মিনিট ম্যাসাজ করতে হবে।

বিশেষজ্ঞ এবং পুষ্টিবিদদের মতে, খাবার খাওয়ার আদর্শ উপায় হলো ধীর জীবনযাপন করা এবং প্রতিটি কামড়ে পুষ্টি গ্রহণ করা। আপনি যখন স্ট্রেস বা টেনশনে থাকেন তখন দ্রুত খাবার খান এবং সেইসঙ্গে বাতাসও ঢুকে যায় পেটের ভেতর। এটি আপনার হজম শক্তিকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে পেটে ও অন্ত্রে প্রদাহ সৃষ্টি করতে পারে। প্রতিদিন খাবারের আগে এবং পরে একটি সাধারণ পেটের ম্যাসাজ আপনাকে এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে।

কীভাবে করবেন:
– মেঝেতে মাদুর বিছিয়ে তার উপর শুয়ে পড়ুন।
– নিশ্চিত করুন যে আপনি যখন এটি করছেন তখন আপনার হাঁটু বাঁকানো এবং পা সমতল অবস্থানে রয়েছে।
– এখন, আপনার উভয় হাত পেটের উপর রাখুন এবং একটি বৃত্তাকার উপায়ে ম্যাসাজ শুরু করুন। এটি ক্লকওয়াইজ এবং এন্টি-ক্লকওয়াইজ উভয়ই করুন।
– ম্যাসাজ চালিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে শ্বাস নিন এবং শ্বাস ছাড়ুন।
– আপনি যে জায়গাগুলোতে ব্যথা অনুভব করছেন সেখানে সামান্য চাপ প্রয়োগ করতে পারেন। পেটে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ না হওয়া অবধি ম্যাসাজ করতে থাকুন।
– পানি পানের পরিমাণ বাড়ানোর চেষ্টা করতে পারেন। নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি প্রতিদিন প্রচুর পানি পান করছেন, প্রতিদিন অন্তত ছয় গ্লাস পানি পান করুন। এটি প্রসারণ এবং হজম সম্পর্কিত সমস্যাগুলো দূরে রাখে।

Comments are closed.







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ। মোবাইল: ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭১৩-৫১২৫৮২।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে