বৃহস্পতিবার রাত ৮:৩৩

২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

১৩ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ বর্ষাকাল

‘নেইমার একা কি করবে, এমবাপ্পের দলে থাকা মিরাকল’

চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের এত কাছাকাছি গিয়েও শিরোপা স্পর্শ করতে পারেনি প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। পর্তুগালের লিসবনের ফাইনালে গোলের অনেক সুযোগই তৈরি করেছিল ফরাসি ক্লাবটি। কিন্তু আক্রমণভাগের ব্যর্থতায় সাফল্য ধরা দেয়নি। বিশেষ করে বেশি তোপের মুখে পড়ছেন নেইমার এবং কিলিয়ান এমবাপ্পে। তবে পিএসজির কোচ থমাস টুখেল ফরোয়ার্ডদের দোষারোপ করতে রাজি নন।

ইউরোপ সেরা হওয়ার জন্য নেইমার এবং এমবাপ্পেকে ৪০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে দলে ভিড়িয়েছে পিএসজি। দলকে ভালো সার্ভিসও দিয়েছেন এই দুই তারকা ফুটবলার। তবে পর্তুগালের লিসবনে এসে যেন গোলমুখের সামনে নিজেদের হারিয়ে খুঁজেছে এই দুই তারকা। নেইমার অসাধারণ ফুটবল খেললেও গোলটাই করতে পারছিলেন না। এদিকে ফরাসি লিগ কাপে গোড়ালির চোটে পড়া এমোবাপ্পেও মিনি টুর্নামেন্টের শেষাংশে এসে নিজেকে যেন হারিয়ে খুঁজছিলেন। এই দুই তারকা মোট শেষ তিন ম্যাচে গোলমুখে ২৩টি শট নিলেও জালে বল জড়াতে পারেননি।

তবে পিএসজি কোচ বলছেন ভিন্ন কথা। তার মতে, নেইমার দুর্দান্ত খেলেছেন এবং এই ব্রাজিলিয়ানের পক্ষে একা কতটাই করা সম্ভব। অপরদিকে এমবাপ্পের মাঠে নামা মিরাকল ৪৬ বছর বয়সী এই জার্মান কোচের কাছে।

তার ভাষ্যে, ‘নেইমার দারুণ একটি টুর্নামেন্ট কাটিয়েছে, সে একা সবকিছু করতে পারবে না। আর জুলাইতে গোড়ালির চোটে পড়ার পরও এমবাপ্পে যে দলের সঙ্গে রয়েছে এটাই একটা মিরাকল।’

এদিকে ম্যাচে প্রথমে গোল পেলে জয়ও ধরা দিত বলে মনে করেন টুখেল। তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমার মনে হচ্ছিল, প্রথম গোলই ফাইনালের ভাগ্য গড়ে দেবে। আমি হতাশ তবে খুব বেশি না। আমরা শিরোপার অনেক, অনেক কাছে চলে গিয়েছিলাম। আমাদের জেতার জন্য কী দরকার ছিল? প্রথম গোলটি। সেটা যদি আমরা পেয়ে জেতাম, তাহলে ওই স্কোরলাইনেই ম্যাচ জিততাম।’







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ। মোবাইল: ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭১৩-৫১২৫৮২।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে