রবিবার ভোর ৫:৫২

২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

২৬শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বর্ষাকাল

ধেয়ে আসছে আরেক সাইক্লোন

দশ দিন আগে আম্ফানের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গ-ওড়িশা রাজ্যের ক্ষতচিহ্ন এখনো শুকায়নি। এরমধ্যে শোনা যাচ্ছে আরেক ঘূর্ণিঝড়ের খবর। তবে এবার বঙ্গোপসাগর নয় উৎপত্তি আরব সাগরে। তাইতো ভারতের আবহাওয়া দফতর গুজরাট ও মহারাষ্ট্রকে সতর্কবার্তা দিয়েছে।

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় দুই রাজ্য গুজরাট ও মহারাষ্ট্রকে ঘূর্ণিঝড়ের সতর্কবার্তা দিয়ে রোববার ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দুই রাজ্যের উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে এই ঘূর্ণিঝড়টি। আরব সাগরে এটি এখন শক্তিশালী হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের কাছ থেকে সতর্কবার্তা পেলে সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশায় আম্ফানের তাণ্ডবের অভিজ্ঞতা বিবেচনায় নিয়ে ওই দুই রাজ্য আগাম প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। ইতোমধ্যে রাজ্য দুটির মৎস্যজীবীদের ৫ জুন পর্যন্ত গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করেছে কর্তৃপক্ষ।

দফতরের সাইক্লোন বিভাগের প্রধান সুনীতা দেবী জানিয়েছেন, আরব সাগর এলাকায় দক্ষিণ-পূর্ব এবং সংলগ্ন পূর্ব-মধ্য অঞ্চলে একটি ঝড়ের সূত্রপাত হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় তা নিম্নচাপে পরিণত হবে। এরপর আরও ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তা ‘সাইক্লোনিক স্টর্ম’ বা ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ‘নিম্নচাপে পরিণত হওয়ার পর উত্তরের দিকে এগিয়ে যেতে পারে ঘূর্ণিঝড়টি। আগামী ৩ জুন তা আছড়ে পড়তে পারে মহারাষ্ট্র এবং গুজরাটের উপকূলে।’ ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে দুই রাজ্যে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির হতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

দেশটির কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মহারাষ্ট্রের দক্ষিণ উপকূলীয় এলাকায় ২ থেকে ৪ জুন, উত্তর উপকূলে ২ থেকে ৩ জুন এবং গুজরাট, দমন-দিউ, দাদরা ও নগর হাভেলিতে ৩ থেকে ৫ জুন ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হবে। এর ফলে সমুদ্র উত্তাল হতে পারে।







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে