শনিবার রাত ১১:০৩

২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

২৫শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বর্ষাকাল

দক্ষিণ চীনের সাগরে বিরোধপূর্ণ দ্বীপের কাছে মার্কিন রণতরী

দক্ষিণ চীন সাগরে বিরোধপূর্ণ দ্বীপের কাছে পৌঁছেছে একটি মার্কিন রণতরী। চীনের দাবিকৃত ট্রাইটন নামের ওই দ্বীপকে ঘিরে ওই অঞ্চলে অনেকদিন ধরেই বিরোধ চলে আসছে। সোমবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউএসএস স্টেথেম নামের ওই রণতরী পারাসেল দ্বীপের অংশ ট্রাইটনের ১২ নটিক্যাল মাইলের মধ্য দিয়েছে গেছে।

চীন এই ঘটনাকে মারাত্মক রাজনৈতিক ও সামরিক হস্তক্ষেপ বলে অভিহিত করেছে। এবং ‍ওই দ্বীপে রণতরী ও যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে। ওই দ্বীপকে দাবি করা নিয়ে চীনকে অনেকদিন ধরেই  সতর্ক করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু চীনের দাবি এটা তাদের সার্বভৌমিক অধিকার। এর মাঝে এই ঘটনা দুই দেশের সম্পর্ককে আরও শীতল করতে পারে।

জাতিসংঘ নিয়মানুসারে কোনও দ্বীপের উপকূল থেকে ১২ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত এলাকাই শুধু ওই দ্বীপ নিজেদের এলাকা বলে দাবি করতে পারে। ফলে মার্কিন রণতরী যেখানে অবস্থান করেছে সেটা নিয়ে অভিযোগ তোলার অবকাশ নেই চীনের।

রবিবার রাতে এক বিবৃতিতে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, তাদের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় যেকোনও পদক্ষেপ নিতে পারে তারা। এছাড়া দক্ষিণ চীন সাগরে পরিস্থিতি ঠান্ডা হয়ে আসার পরও যুক্তরাষ্ট্র একে উষ্কে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করে তারা।

দক্ষিণ চীন সাগরের প্রায় পুরোটাই দাবি করে চীন। এশিয়ার অন্যান্য দেশও এ অঞ্চলে কিছু প্রবাল প্রাচীর ও দ্বীপের মালিকানা দাবি করে। ফলে এই অঞ্চল খুবই বিরোধপূর্ণ। অনেকদিন ধরেই এই অঞ্চলে কৃত্রিম দ্বীপ তৈরি এবং সামরিক স্থাপনা নির্মাণ করে আসছে চীন। অন্যদিকে এ অঞ্চলে ‘সামরিকীকরণ’ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীন দীর্ঘদিন ধরেই পরস্পরকে দোষারোপ করে আসছে।







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে