বৃহস্পতিবার রাত ৪:৪৯

৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

১৭ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ হেমন্তকাল

চট্টগ্রাম হয়ে ভারতের পণ‌্য আখাউড়ায়

ট্রানজিট চুক্তির আওতায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর হয়ে আসা ভারতীয় পণ‌্যের প্রথম চালান সেদেশের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ‌্য ত্রিপুরা ঢুকবে কাল বৃহষ্পতিবার। আজ বুধবার বিকেলে চট্টগ্রাম থেকে আসা ডাল ও রডের চারটি ট্রেলর আখাউড়া স্থলবন্দরে এসে পৌঁছে।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় আনুষ্ঠানিকভাবে পণ্যগুলো ভারতের আগরতলায় পাঠানো হবে। আখাউড়া ও আগরতলা স্থলবন্দরের শূণ্যরেখায় ত্রিপুরা রাজ্যের মূখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব এই পণ‌্য গ্রহন করবেন।

দুদেশের আলোচিত ট্রানজিট চুক্তি চুক্তির আওতায় প্রথম চালানের এসব পণ্য আজ বুধবার ত্রিপুরা যাওয়ার কথা থাকলেও একদিন পেছানো হয়েছে। মূলত মূখ্যমন্ত্রীর জন্যই অনুষ্ঠান একদিন পেছানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

পরীক্ষামূলক প্রথম চালান হিসেবে ৫৩.২৫ মেট্রিক টন রড আর ৪৯.৮৩ মেট্রিক টন ডাল নিয়ে গত ১৪ জুলাই কলকাতার বন্দর থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ‘সেজুতি’ নামের একটি ভারতীয় জাহাজ রওনা হয়। ভারতের জাহাজ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মনসুক মান্ধাভিয়া ওইদিন এক ভার্চুয়্যাল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পতাকা নাড়িয়ে জাহাজের যাত্রা উদ্বোধন করেন। মঙ্গলবার দুপুরে ভারতীয় জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরে নোঙর করে। 

এরপর আনুষ্ঠানিকতা শেষে জাহাজ থেকে পণ্য খালাসের কাজ করে কে. জে. শিপিং। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে বুধবার ভোর রাতে রড ও ডালবোঝাই চারটি ট্রেইলর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। বিকেলে সাড়ে ৪টায় ট্রেইলরগুলো আখাউড়া স্থলবন্দরে পৌঁছে।

ভারতীয় পণ্য পরিবহনকারী প্রতিষ্ঠান আদনান ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের সত্বাধিকারী আক্তার হোসেন বলেন, ‘আজকে বুধবার পণ্যগুলো আগরতলায় পাঠানোর জন্য আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া ছিলো। কিন্তু একদিন পিছিয়ে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে পণ্যগুলো আগরতলায় পাঠানো হবে। আখাউড়া ও আগরতলা স্থলবন্দরের শূণ্যরেখায় ত্রিপুরা রাজ্যের মূখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব এই পণ‌্য গ্রহন করবেন।’

আখাউড়া স্থল শুল্ক স্টেশনের উপ-কমিশনার কাজী ইরাজ ইশতিয়াক বলেন, ‘ভারতীয় পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে আমাদের সব ধরনের প্রস্ততি সম্পন্ন। পণ্য পরিবহনের জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে মাশুল নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরেই মাশুল আদায়ের বিষয়গুলো সম্পাদিত হবে।’

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ২৫ অক্টোবর বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পাদিত ‘অ্যাগ্রিমেন্ট অন দ্য ইউজ অব চট্টগ্রাম অ্যান্ড মোংলা পোর্ট ফর মুভম্যান্ট অব গুডস্ টু অ্যান্ড ফ্রম ইন্ডিয়া’ চুক্তির আওতায় এবং ২০১৯ সালের ৫ অক্টোবর উভয় দেশের মধ্যে সাক্ষরিত স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) অনুযায়ী বাংলাদেশের বন্দর ব্যবহার করে নিজ দেশে পণ্য পরিবহন করছে ভারত।

Comments are closed.







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ। মোবাইল: ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭১৩-৫১২৫৮২।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে