মঙ্গলবার রাত ৩:৪৭

২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

৪ঠা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ হেমন্তকাল

আরেক কৃষ্ণাঙ্গকে গুলির প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ-সংঘর্ষ

তিন সন্তানের সামনে উইসকনসিনের পুলিশের গুলিতে এক কৃষ্ণাঙ্গ আহত হওয়ার পর বিক্ষোভ-সংঘর্ষের শহরে পরিণত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কেনোশা।

গতকাল সোমবার (২৪ আগস্ট) বিক্ষোভের দ্বিতীয় রাতে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস ছুড়েছে পুলিশ। তাদের সহায়তায় ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েন করেছেন অঙ্গরাজ্যটির গভর্নর।

রাত নামতেই বিক্ষোভকারী ও পুলিশের সংঘর্ষ শুরু হয়। সন্ধ্যা-সকালের কারফিউ উপেক্ষা করে কেনোশা আদালতের বাইরে সমবেত হয় বিক্ষোভকারীরা। চিৎকার করে তারা প্রতিবাদ জানায় এবং নিরাপত্তা বাহিনীর দিকে পানির বোতল ছুড়তে থাকে। কেউ কেউ পুলিশের দিকে আতশবাজিও ছোড়ে এবং শহরের বিভিন্ন স্থানে গাড়ি ও ভবনে আগুন জ্বালিয়ে দেয়।

গত ২৫ মে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের বৃহত্তম শহর মিনিয়াপলিসে পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ নিহত হওয়ার পর বর্ণবাদবিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হয়। যুক্তরাষ্ট্রের সর্বত্র ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

ওই ঘটনার পর যুক্তরাষ্ট্রে অঙ্গরাজ্যভিত্তিক পুলিশ বিভাগকে বিলুপ্ত করার দাবিও জানায় কেউ কেউ। তার মধ্যেই বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে পুলিশের গুলিতে নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ হতাহত হওয়ার ঘটনা অব্যাহত রয়েছে। গত রোববার (২৩ আগস্ট) সন্ধ্যায় উইসকনসিনের কেনোশা শহরে পুলিশের গুলিতে গুরুতর আহত হন জ্যাকব ব্লেক নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ। তাকে পেছন থেকে কয়েকবার গুলি করে পুলিশ। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়,রোববার রাতে কেনোসা শহরে গাড়িতে ওঠার জন্য ২৯ বছর বয়সী জ্যাকব ব্লেক যখন হেঁটে যাচ্ছেন তখন তাকে অনুসরণ করছে দুই পুলিশ সদস্য। ব্লেক গাড়ির দরজা খোলার সাথে সাথে তার পিঠে গুলি করে তাদেরই একজন। সেসময় গাড়ির ভেতরে বসে থাকা তার তিন সন্তান পুরো ঘটনা দেখতে পায়। সোমবার ব্লেকের বাবা জানিয়েছেন,তার ছেলের শরীরে অস্ত্রোপচার হয়েছে। এখন তার অবস্থা স্থিতিশীল আছে।







© সকল স্বত্ব- সমাজ নিউজ -কর্তৃক সংরক্ষিত
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েব: www.somajnews.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

ডিজাইন: একুশে