প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা

আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়ে ছাত্রলীগের ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে। শুক্রবার জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্যেই সীমিত ছিল আওয়ামী লীগের ভাতৃপ্রতিম সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের আনুষ্ঠানিকতা।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আগে বৃহস্পতিবার রাতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘণিষ্ঠ সহচর মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সৈয়দ নজরুল ইসলামের সুযোগ্য পুত্র আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ত্রী সদস্য ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে জাতি আজ গভীর শোকে আচ্ছন্ন। মরহুমের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ছাত্রলীগের ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন পরবর্তী সকল কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।’

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী সমকালকে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ একটি একান্নবর্তী পরিবার। সৈয়দ আশরাফও এই পরিবারের একজন সদস্য ছিলেন। বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। সাংগঠনিকভাবে তিনি আমাদের বড়ভাইও ছিলেন। ইতিবাচক দিকনির্দেশনা দিয়ে তিনি সবসময় ছাত্রলীগের পাশে থেকেছেন। বাংলাদেশের রাজনীতির এই শুদ্ধপুরুষের প্রয়াণে আমরা শোকাহত। এমন প্রেক্ষাপটে সৈয়দ আশরাফের প্রতি সম্মান জানাতে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আনন্দঘন সকল আয়োজন স্থগিত করা হয়েছে বলে জানান রাব্বানী।

তবে কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুয়ায়ী শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে সৈয়দ আশরাফের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিভিন্ন মসজিদের ছাত্রলীগের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়ার ব্যবস্থা করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে বাদ জুমা দোয়া মাহফিলে অংশ নেন শোভন ও রাব্বানীসহ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

এর আগে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর নেতৃত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারন সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের আহমেদ এবং ঢাকা উত্তরের সভাপতি মো. ইব্রাহিম ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান হৃদয়সহ বিভিন্ন ইউনিটের শীর্ষ নেতাকর্মীরা।

পরবর্তী কর্মসূচি প্রসঙ্গে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী জানান, আগামী সপ্তাহে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা পালিত হবে। তিনি আরও বলেন, দেশের প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে বরাবরই গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এবারের নির্বাচনেও ব্যাপক ভূমিকা পালন করেছেন। এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিপুল জয়ের পেছনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বড় অবদান রেখেছেন। তবে আমাদের অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা বলেছেন, বিজয়ী হওয়ার পর এখন আনন্দ উদযাপনের নয়, বরং দেশ গঠনে আরো দায়িত্বশীলতার সঙ্গে কাজ করার সময়। তার নির্দেশনা অনুযায়ী সর্ববৃহৎ ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ আরও নানা ইতিবাচক কর্মকাণ্ডের সম্পৃক্ততার মাধ্যমে দেশ ও তরুণসমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজে মনোনিবেশ করবে বলে অঙ্গীকার করেন গোলাম রাব্বানী।

Share Button

Comments are closed.







সম্পাদকঃ মো: দেলোয়ার হোসেন (শরীফ), সহকারী সম্পাদকঃ এস টি শাহীন প্রধান।
২২ সেগুনবাগিচা, ৫ম তলা, ঢাকা- বাংলাদেশ। ফোন : ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭৩৯-৮০১৪১৯।
ই-মেইল: news@somajnews.com, ওয়েবঃ- www.somajnews.com

Developed By: Ekushey.Info